স্বামী-স্ত্রী স’হবাসের সময় বেশি আওয়াজ করায় স্বামীকে কা’রাদণ্ড বিস্তারিত।

রাতে সঙ্গমের আওয়াজ প্রতিদিন চলে যায় প্রতিবেশির বাড়িতে। আর তারপরই প্রতিবেশির চিঠি, একটু আস্তে, আওয়াজ কানে আসছে। হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এমনই ঘটনা ঘটেছে সম্প্রতি। এই ধরনের আজব অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয়েছেন স্টিফেন কানিংহাম নামে ২৬ বছর বয়সি স্কটল্যান্ডের এক যুবক। নিজেই টুইট করে সেকথা জানিয়েছেনও নেটিজেনদের। যা দেখার পর নেটদুনিয়াতেও রীতিমতো হাসির রোল।

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, গ্লাসগোয় একটি আবাসনে থাকেন স্টিফেন। কয়েকমাস আগেই তিনি সেখানে এসেছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি একদিন সকালে একটি চিঠি হাতে পান তিনি। সেখানে তাঁকে উদ্দেশ্য করে লেখা, এই বাড়ির দেওয়াল খুবই পাতলা। তাই এক ঘরের আওয়াজ অন্য ঘরে সহজেই চলে আসে।

রাতবিরেতে আপনার স’ঙ্গ’মে’র আওয়াজও তাই আমরা স্পষ্ট শুনতে পাই। দয়া করে আওয়াজ যেন একটু আস্তে হয়, সেই খেয়াল রাখুন। এই প্রসঙ্গে স্টিফেন বলেন, “আমি প্রথমে ভেবেছিলাম কোনও বন্ধু হয়তো ইয়ার্কি মারছে।

পরে বুঝতে পারি, আমারই কোনও প্রতিবেশি হয়তো এই চিঠিটি লিখেছেন। তবে তিনি কে? সেটা বুঝতে পারছি না। অবশ্য চিঠিটি দেখার পর আমি খুবই হেসেছিলাম। পরে যদিও কিছুটা লজ্জাও লাগে।” স্টিফেন আরও জানান, চিঠিটিতে কোনওভাবেই তাঁকে অপমান বা কটূক্তি করা হয়নি। বরং ভালভাবেই বিষয়টি বলা হয়েছে।

এদিকে, এরপরই তিনি সেই চিঠিটি সোশ্যাল মিডিয়াতেও পোস্ট করেন। সঙ্গে লেখেন, “স’ঙ্গ’মে’র সময় আস্তে আওয়াজ করার আবেদন জানিয়ে প্রতিবেশিরা চিঠি দিয়েছে।” ইতিমধ্যে অনেকেই সেই চিঠিটি দেখে অবাক হয়ে গিয়েছেন। কেউ কেউ মজা উড়িয়েছেন।

Mahfuz Mia

মাহফুজ মিয়া বাংলাদেশের অন্যতম শিক্ষা বিষয়ক ওয়েবসাইট পড়ালেখা ২৪.কম এর প্রতিষ্ঠাতা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Back to top button