এবার পরীমনির বিরু’দ্ধে জি’ডি বিস্তারিত।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির বিরু’দ্ধে রাজধানীর অভিজাত এলাকায় একটি ক্লাবে ভাঙ’চুরের অভি’যোগ এনেছে প্রতিষ্ঠানটি।

গুলশান-২ এলাকার অল কমিউনিটি ক্লাব ৯৯৯ নম্বরে কল করলে পুলি’শ ঘটনাস্থলে যায়। পরে গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি করে বাহিনীটি।

বুধবার (১৬ জুন) এই বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর পুলি’শের গুলশান বিভাগের উপ-কমি’শনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী।

তিনি বলেন, ‘গত ৭ জুন রাতে কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙ’চুরের অভিযোগে তার (পরীমনির) বিরু’দ্ধে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। কবে এই জিডি হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সম্ভবত ৭ জুন রাতে।’

জিডিতে কী বলা হয়েছে, জানতে চাইলে সুদীপ বলেন, ‘অভিযোগ যে, উনি আনঅথরাইজড ওখানে গেছেন। তারপর ক্লাব মেম্বারসদের যে জায়গা ছিল, ওখানে নাকি বসতে চেয়েছেন, তারপর নাকি ভা’ঙচুর করেছেন। এইগুলো আরকি।’

ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগে পরীমনির বিরু’দ্ধে জিডির বিষয়টি নিয়ে জানতে গুলশান থানায় ফোন করা হলে কেউ তা রিসিভ করেননি। আর পরীমনির ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি ।

পরীমনি অভিযোগ করেছেন, ঢাকার বিরুলিয়ায় ঢাকা বোট ক্লাবে গত ৯ জুন রাতে তাকে ধর্ষ’ণের চেষ্টা ও হ’ত্যার হু’মকি দেয়া হয়েছে।

সেই ঘটনায় তিনি ওই ক্লাবের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন মাহমুদ, সেদিন তাকে নিয়ে যাওয়া অমিসহ পাঁচজনের বিরু’দ্ধে মামলা করেন গত সোমবার। সেদিনই গ্রে’প্তার হন আসামিরা।

গ্রেপ্তার হওয়ার আগে নাসির বলেছেন, তার বিরু’দ্ধে আনা সব অভিযোগ মিথ্যা। তিনি উল্টো সেই রাতে পরীমনি ও তার সঙ্গীদের বিরু’দ্ধেই ক্লাবে বিশৃঙ্খলার অভিযোগ আনেন।

নাসিরের দাবি, পরীমনি তাদের ক্লাবে গিয়ে দামি মদ দেখে সেগুলো খাওয়ার চেষ্টা করেন। তারা বাধা দিলে এই নায়িকার সঙ্গীরা তাদের ওপর হামলা করেন। পরীমনি সে সময় চেঁচামেচি করেন, ভাঙ’চুর চালান।

তবে পরীমনির বর্ণনা ভিন্ন। তিনি দাবি করেন, অমি জরুরি কাজে সেই ক্লাবে যান। তখন তারা ছিলেন গাড়িতে। টয়লেটে যাওয়ার জন্য তারাও নামেন।

সেই ক্লাবে পরে তার সঙ্গী জিমিকে মারধর করা হয়, তার মুখে জোর করে মদের বোতল ঢুকিয়ে দেয়া হয়। আর তাতে নেশাজাতীয় কিছু থাকতে পারে বলে তার ধারণা।

সেই রাতে সেখান থেকে মুক্ত হয়ে বনানী থানায়ও গিয়েছিলেন বলে জানান পরীমনি। কিন্তু থানা তার অভিযোগ গ্রহণ করেনি। এরপর গত রোববার রাতে ফেসবুক স্ট্যাটাসে ধর্ষণ ও হত্যা’চেষ্টার অভিযোগ আনেন। পরে ওই রাতেই গণমাধ্যমকর্মীদের ডেকে বিস্তারিত খুলে বলেন। পরদিন সকালে তিনি মা’মলা করেন।

Mahfuz Mia

মাহফুজ মিয়া বাংলাদেশের অন্যতম শিক্ষা বিষয়ক ওয়েবসাইট পড়ালেখা ২৪.কম এর প্রতিষ্ঠাতা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

Back to top button